জীবন বাজি রেখে ৮ তলার ওপর থেকে শিশুকে বাঁচালেন তিনি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

নিজের জীবন বাজি রেখে ১০০ ফুট ওপর থেকে একটি শিশুকে বাঁচালেন এক ব্যক্তি। কাজাখস্তানের ওই ব্যক্তি এখন রীতিমত হিরো। তিন বছরের একটি শিশু জানালা ধরে ঝুলে ছিল। সে সময় নিজের বিপদ জেনেও শিশুটিকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেন ওই ব্যক্তি।

ব্রিটেনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ইন্ডিপেন্ডেন্টের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, গত বুধবার কাজাখস্তানের রাজধানী নুর-সুলতানে ওই ঘটনা ঘটেছে। শিশুটির মা তাকে রেখে কেনাকাটা করতে গিয়েছিলেন। সেই সুযোগে শিশুটি কুশন আর খেলনা ব্যবহার করে জানালায় উঠে যায়। ভাগ্যক্রমে সে জানালায় ঝুলে ছিল।

ঠিক সে সময়ই কাজে যাচ্ছিলেন শনতাকবায়েভ সাবিত। তিনি দেখেন অনেক মানুষ জড়ো হয়েছে। পরে আসল ঘটনা বুঝতে পারেন।

এই ঘটনা দেখেই দ্রুত শিশুটিকে বাঁচানোর সিদ্ধান্ত নেন সাবিত। তিনি তড়িৎ গতিতে ওই ভবনে ওঠেন। শিশুটি যেখানে ঝুলে ছিল তার নিচের তলার জানালা দিয়ে বের হয়ে শিশুটিকে টেনে ধরেন তিনি। এরপর শিশুটিকে জানালা দিয়ে ভেতরে পাঠিয়ে দেন।

এত উচু থেকে পরেও যেতে পারতেন সাবিত। কিন্তু তা জেনেও তিনি শিশুটিকে উদ্ধারে এগিয়ে আসেন।

শিশুটিকে দ্রুত উদ্ধার করায় কাজাখস্তানের জরুরি পরিস্থিতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় সাবিতকে হিরো উপাধি দেয় এবং পুরষ্কার হিসেবে তাকে একটি মেডেল দেওয়া হয়।

মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানা গেছে, তারা ঘটনাস্থলে ৭ জন কর্মকর্তা এবং দুটি গাড়ি পাঠিয়েছিল। কিন্তু সেখানে পৌঁছে তারা দেখেন এক ব্যক্তি আটতলা থেকে শিশুটিতে উদ্ধারে এগিয়ে এসেছে।

এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ওই শিশুটির সঙ্গে সে সময় কেউ ছিল না। শিশুটিকে ঝুলে থাকতে দেখে কোনো রকম দ্বিধাদ্বন্দ্ব না করেই নিজের জীবন বাজি রেখে তাকে উদ্ধার করেন সাবিত।

এই ভিডিওটি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। নেটিজেনরা ওই সাবিতকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন এবং তার প্রশংসা করেছেন।

এটাও চেক করেন

সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে যেমন পদ্মা সেতু দৃশ্যমান তেমনিভাবে আলীগঞ্জ মাঠও দৃশ্যমান – পলাশ

খবর নারাযনগঞ্জ.কম: জাতীয় শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব কাউসার আহমাদ পলাশ বলেছেন, বাঙালি …

Shares